“আমার অদ্ভুত স্বামী (১)”

নারী মেয়ে বনাম ছেলে
Imran Khan || 04 April, 2019 ! 5: 24 pm

“আমার অদ্ভুত স্বামী (১)”

আজ আমার বাসর রাত,
এখন ঘড়িতে বাজে ১০.৩০
আমি বিশাল একটা ঘরে খাটের
এক সাইডে বসে আছি।
খাটটা ফুল দিয়ে সাজানো।
এক ধরনের ভ্যাঁপসা গরম লাগছে ।

আমার পড়নে ইয়া মোটা এক
শাড়ি খুবই অসস্তি লাগছে ।।
শাড়িটা খুলতে পারলে ভাল
হত কিন্তু সেটা সম্ভব না কারণ
আমি নতুন বৌ এখন আমি শাড়ি
খুললে সবাই আমাকে বেহায়া ভাববে ।

আজ আমার বাসর রাত
বাসর রাত সম্পর্কে অনেক
বান্ধবীদের কাছে নানা গল্প
শুনেছি কিন্তু আজকে আমি
সেই অবস্থায় আছি । আমার
ভাবি আমাকে অনেক গুলা
জিনিষ শিখিয়ে দিয়েছে
যা আমি বলতে পারব
না খুবই লজ্জার ।।

আমার স্বামী ঘরে ঢুকল
রাত ১১ টায় । আমি খাট
থেকে উঠে তাঁকে সালাম
করতে গেলাম । এটা আমার
দাদি আমাকে শিখিয়ে দিয়েছে ।

আমার স্বামীর মুখে অনেক
গুলা দাঁড়ি আছে দেখতে অনেক
সুন্দর দাঁড়ি গুলা কাটলে মনে হয়
আরও সুন্দর লাগবে ।

আমি সালাম করতে গেলে সে
আমাকে টেনে উঠিয়ে বলল
পায়ে ধরে সালাম করা ইসলামে
জায়েজ নেই ।

আর তোমার অবস্থান
আমার পায়ে নয় আমার
বুকে । সব সময় আমার
বুকে থাকবে কখন এমন
কাজ করবে না যাতে আমার
পায়ে নামতে হয় আবার
কখন মাথায় উঠবে না ।

প্রথম কথাটা আমার খুব
ভাল লাগছে সারাজীবন
আমার বুকে থাকব । কিন্তু
পড়ের ২টা কথা আমার ভাল
লাগে নাই যেমন আমি কি ফুটবল
যে পায়ে নামব এর আমি কি বাঁদর
যে মাথায় উঠব ।

অন্য সময় হলে এটা নিয়ে আমি
একটা ছোট খাট ঝগড়া বাধিয়ে
দিতাম কিন্তু আজকে দিতে পারলাম
না শত হলেও আমি নতুন বউ ।

আমার স্বামী বলল তোমার
মনে হয় খারাপ লাগছে এক
কাজ করো ঐ সুতি শাড়িটা পরো
আর ওযু করে আস নফল নামাজ
পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করব ।

আমি কিছু বললাম না মনে মনে
বললাম পাগল নাকি বাসর রাতে
কেউ নামাজ পড়ে ।

ইচ্ছা না থাকার পরও অযু করে তার
সাথে নামজ পড়লাম । একটা লোক
এসে খাবার দিয়ে গেছে অনেক রকমের ।

খাবার দেখে আমার পেটটা মোচড়
দিয়ে উঠল সেই বেলা ১২ টা বাজে
খেয়েছি আর কিছু খাই নাই মেকআপ
নষ্ট হয়ে যাবে তাই আমাকে খেতে
দেয়া হয় নাই ।

আমার স্বামী বলল তোমার মনে হয়
খুব ক্ষুধা লেগেছে আসো আগে খেয়ে
নেই তার পড়ে গল্প করব ।। খাওয়ার
মাঝে আমার স্বামী আমাকে ২ লোকমা
খাওয়ায়ে দিল।

আমর খুব ইচ্ছা করছিল
কিন্তু লজ্জার কারণে পারি নাই ।
খাওয়া শেষে একটা লোক এসে সব
নিয়ে গেল ।

আমি আর আমার স্বামী পাশা-
পাশি বসে আছি । সে আমার
হাতটা ধরে আমার হাতের
একটা আঙ্গুলে একটা আঙটি
পড়িয়ে দিল বলল আমার পক্ষ
থেকে এটা তোমাকে উপহার।

ইস আমার খুব ভাল লাগছে ।
অনেক ভাল লাগছে । অনেক
মেয়েরাই বলে তাদের স্বর্ণ
গয়নায় কোন লোভ নাই আসলে মিথ্যা ।
মেয়েরা ৩ জিনিষে কখন ভাগ দিতে
পারে না তাহল স্বামী ,সন্তান আর গয়না।

আমার স্বামী আমাকে বল এখন ঘড়িতে
কয়টা বাজে ।মনে মনে বললাম কেন
আপনি (এই আমি আপনি বলছি
কেন আমি তুমি বলব তো )

চিনেন না ঘড়ির টাইম । তাড়পর নরম
গলায় বললাম ১১.৩০ টা । স্বামী বলল
এখন যদি আমার মা বা তার লেভেলের
কোন মুরব্বি বলে এখন রাত ১১.৩০ না
রাত ২ টা তাহলে তুমি কি করবে ।

আগেই বলেছিলাম আমার
স্বামী অনেক অদ্ভুত।
মা-বাবা কেন রাত ১১.৩০টা
কে ২টা বলবে ?

বোকা লোকেরপ্রশ্নের জবাব দিতে
নেই এতে নিজেরই বোকা হয়ে
যেতে হবে ।

সে বল শুন তারা হল মুরব্বি সব
সময় যে সঠিক বলবে তা না অনেক
সময় তারা ভুল বলবে তাই বলে সাথে
সাথে চিৎকার করে তার ভুলধরিয়ে
দিবে না তাদের কথা মেনে নিবে ।

তাদের মেজাজ মর্জি বুঝবে তার
পড়ে হাসি মুখে বলবে বা সময়
কালে চুপ থাকবে ।

বা আমাকে বলবে এতে দেখবে
সংসারে অনেক শান্তি আসবে ।।
তারপড়ে আমাকে অনেক উপদেশ
দিল আমার স্বামী……………
তারপর…………………।।

#বিঃদ্রঃ গল্পের বাকি অংশ গুলো পড়তে
চাইলে লাইক কমেন্ট করে অথবা ফ্রেন্ড
রিকুয়েস্ট দিয়ে সাথেই থাকুন।ধন্যবাদ।

Post Reads: 2087 Views