গতকাল সন্ধ্যায় আমার প্রেগন্যান্ট বউটাকে ঝগড়ার কারনবশত কষে এক থাপ্পড় মেরেছিলাম।

গল্প ভালবাসার গল্প
Razia Aktar Moni || 12 December, 2019 ! 10: 29 am

গতকাল সন্ধ্যায় আমার প্রেগন্যান্ট বউটাকে ঝগড়ার কারনবশত কষে এক থাপ্পড় মেরেছিলাম।

এরপর আজ সকাল অব্দি আমার পেটে বিস্কুট ছাড়া আর কিছুই পড়েছিলোনা। সেও হয়তো বিস্কুট খেয়েই পার করেছে।
সাড়ে ৫ মাস ধরে বউয়ের বিভিন্ন বায়না, আবদার, রাগ, মেজাজ গরম দেখানো এসব ভালোবেসেই সহ্য করে আসছি। কিন্তু দিন দিন তীব্রতা বাড়ছে। একত অফিসের কাজের ঝামেলা তারওপরে বউয়ের এসব আচরন পাগল করে দিচ্ছে আমাকে।

না খেয়ে অফিসে আসার পর ফোন স্ক্রিনে আমার আম্মুর নাম্বার দেখে রিসিভ করতেই কর্কশ ঝাড়ি খেলাম।
আম্মুঃ তুই কি এরকমই থাকবি? এত রাগ কেন তোর? তুই শুধু তোর বউকেই মারিসনি, তোর সন্তানকেও মেরেছিস।

আমিঃ আম্মু, তোমার বৌমা আমার কথা না বুঝেই উত্তেজিত হয়ে গিয়েছিলো, আর তখন..

আম্মুঃ চুপ কর। তোকে পেটে রেখে আমি যতটা কষ্ট সহ্য করেছি, তোর আব্বুও আমার সাথে ততটাই কষ্ট সহ্য করেছে। সংসারের কোনো জিনিসের জন্য বৃষ্টির ভিতরেই বাইরে গিয়ে এনেছে। ভুলে গেলে, সাথে সাথেই আবার গিয়েছে। এখন তো হাতের কাছে সব পাওয়া যায়, আগে তো সেই উপায়ও ছিলো না।

এভাবে ৬ মিনিট পর আম্মু ফোন রাখলো।
তারপর নিজের ভুল বুঝতে পারলাম।
দুপুর ১টায় বড় স্যারের কাছে থেকে সেদিনের মত অফিস ছুটি নিলাম।
বাসায় ফেরার পথে রেস্টুরেন্ট থেকে হায়দ্রাবাদি বিরিয়ানি নিয়ে গেলাম।

বেল দেয়ার পর বউ দরজা খুলতেই শুকনো মুখটো দেখে নিজেকে খুব নিচু লাগছিলো।
বউয়ের হাতটা ধরে সরি বললাম, হটাৎ সেও আমাকে একটা আলতো থাপ্পড় দিয়ে প্রতিশোধ নিলো।
হাসতে হাসতে আমিও আমার প্রেগন্যান্ট বউটাকে বুকে টেনে নিলাম। এর পর হাত মুখ ধুয়ে একসাথে বিরিয়ানি খেলাম। আমাদের সব ঝামেলা মিটে গেলো।

উপলব্ধি করলাম একজন নারী যদি শারিরীকভাবে এই যন্ত্রণা সহ্য করতে পারে, আমি পুরুষ হয়ে তাঁর সামান্য কথা কেন সহ্য করতে পারবোনা।
সে তো আগে এমন ছিলোনা। তাঁর জীবনের ঝুকি নিয়ে আরেকজনকে সে বড় করছে, জন্ম দিবে। মানসিক ভাবে আসলেই সে অনেক চিন্তিত থাকে।এজন্যই মাঝে মাঝে সে এরককম করে।
ভাববে ভাবতেই বউয়ের জন্য ভালোবাসা আরো বেড়ে গেলো।
কপি পোস্ট

Comments

Post Reads: 2501 Views