জোর করে বিয়ে

ভালবাসার গল্প
Razia Aktar Moni || 03 May, 2018 ! 6: 34 pm

গল্প: জোর করে বিয়ে

ঐ উঠ,,,
— হুম,উঠছি,,,,
— ওই আর কত ঘুমাবি,,,ওঠ তোর না আজ কলেজ আছে,,,,?
— ধুর প্রতিদিন সকাল বেলা এই কথা টা বলেই আমার মাথা গরম করে দাও তুমি,,,, ভাল্লাগেনা,,,
— ভাল না লাগলেও জেতে হবে,,, ওঠ তারাতারি,,,,




আমি তন্ময়। আসলে আমার কলেজে যেতে বা কাজ করতে কোনো টাই ভাল লাগে না। আমার শুধু বন্ধুদের সাথে ঘুরাঘুরি করতে মন চায়,,,। কিন্ত বাবা আমাকে ঘুরাঘুরি কর‍তেই দেয় না। তাই এখন কলেজ আমার কাছে শত্রু মনে হয়,,। আর আমার মা প্রতিদিন কলেজে যাওয়ার জন্য ডেকে দেয়,,,। কি আর করার অনিচ্ছা সত্তেও যেতে হয়,,।
এভাবেই চলছিলো আমার জীবন,,,
হঠাত,,,



–তন্ময়,,, বাবা,,তন্ময়,
— হুম মা বলো,,,
— আর কত ঘুমাবি বাবা ১১:৩০ বেজে গেছে তো,,,,
— কিইইইইইইই,,,,? মা আমার ক্লাস ত ১১ টায় ছিলো,,,। আরকটু আগে ডেকে দাও নি কেনো,,,?
— আমি ইচ্ছা করেই ডাকি নি,,,।
— মানে,,, কিন্ত কেনো,,,,?
— আজ তোকে কলেজে জেতে হবে না,,,
— ওয়েট ওয়েট ওয়েট,,,,, আজ সুর্য কোন দিকে উঠেছে মা,,,
— ক্যান,, পুর্বদিকে,,,
— জেই মা প্রতিদিন কলেজে যাওয়ার এক ঘন্টা আগে আমাকে ডেকে দাও,,। সেই মা আজ কলেজের ক্লাস শুরু হওয়ার আধা ঘন্টা পর ডেকে দিলা,,,। তার উপর বলছো কলেজে জেতে হবে না,,,। ব্যাপার কি মা,,,?
— তেমন কিছু না,,, আজ তোকে নিয়ে একটু শপিংয়ে যাবো তাই কলেজে জেতে বারন করেছি,,।
— শপিংয়ে,,,,?? কিন্ত কেনো,,,,??? আমরা কি কোথাও যাচ্ছি নাকি,,,?
— হুম,,,
— কোথায়,,,,?
— আমাদের ছোট ছেলের জন্য বউ খুজতে যাবো,,,,,
— মানে,,,,,? এই ছোট ছেলেটা আবার কে,,,,?
— তুই আমাদের ছোট ছেলে,,,
— তাহলে বড় ছেলে কে,,?
— তুই,,,
— এ কেমন বিচার,,,,? আচ্ছা বাদ দাও,, আমি কবে বললাম যে আমি বিয়ে করবো,,,?
— কোনোদিন বলিস নি তো,,,
— তাহলে আমার জন্য মেয়ে দেখার বুদ্ধি টা মাথায় কে দিয়েছে,,,,?
— তোর উরাউরি একটু বেশি হয়ে গেছে তাই এই বুদ্ধি বের করেছি,,,,।
— মানে,,,, কে উরাউরি করছে,,,?
— কেউ না,, জা তারাতারি রেডি হয়ে নে,,,
— আমি যাবো না মা,,, আর আমি এ বিয়েও করবো না,,,


— তুই করবি না তোর বাপ করবে,,,।( বাবা পাশের রুম থেকে আমার রুমে এসে বল্লো)
— হু জাও জাও,, তাই করো,,,। এতদিন আমার মা কে অনেক কষ্ট দিছো,,। এবার আরেকটা বিয়ে করে এনে আমার মাকে এলটু রেহাই দাও,,,,।
— তা আব্বাজান,, এই একই কাজ টা আপনি করলেও ত পারেন,,,,
— মানে,,,,,,?????
— আপনি একটা বিয়ে করে এনে আপনার মাকে একটু রেহাই দিলেই ত পারেন,,,,,
— আমি পারবো না,,,,,
– আরিফ আমি কোনো কথা শুনতে চাইনা,,,। তুই তারাতারি রেডি হয়ে নে,,,। শপিং থেকে এসে মেয়ের বাসায় যাবো আমরা,,,। ( মা)




এই কথা বলেই বাবা মা দুজনেই আমার রুম থেকে বেরিয়ে গেলো,,,।
কেমন লাগে বলেন,,,, বলা নেই কওয়া নেই হুট করেই বলছে মেয়ে দেখতে যাবে,,। কি আর করার যাই,,, কপালে জা আছে তাই হবে,,,।





তারপর আমরা বিকেলের দিকে মেয়ের বাসায় যাওয়ার জন্য বের হলাম। কিছুক্ষন পর আমরা চলেও আসলাম মেয়ের বাসায়,,,
রুমের ভিতর ঢুকতেই আমার মাথা ঘুরে যাওয়ার মত অবস্থা,,,। এখানে বউ কোনটা আর বউয়ের বোন কোনটা,, কিছুই ত মেলাতে পারছি না,,
সবাই এত সেজেগুজে এসেছে যে,, মনে হচ্ছে আমাকে বিয়ে করার জন্য এরা সবাই পাগল হয়ে লাইন ধরে আছে। আর আমাকে এদের ভিতরেই কাউকে বেছে নিতে হবে,,
তবে ভাবছি যদি সত্যি তাই হয়,, তাহলে কাকে নিবো,,, সবাই ত সবার থেকে সুন্দর,,,,





যাই হোক আমরা রুমে এসে বসলাম,,
কিন্ত অনেক ক্ষন হয়ে গেলো এরা মেয়েকে আনছে না,,,। আমারো রাগ উঠতে লাগলো। তাই বাধ্য হয়ে মাকে বললাম,,,
— মা এরা মেয়েকে আনছে না কেনো এখনো,,,,?
— বাববাহ,, ছেলের আমার তর সইছে না বুঝি,,,
— কি যে বলো মা,,,
— আচ্ছা আচ্ছা লজ্জা পাস না,,। আমি আনতে বলছি মেয়েকে,,



তারপর মা ওনাদের মেয়েকে আনতে বললেন,,
কিছুক্ষন পর ইয়া বড় ঘোমটা দিয়ে একটা মেয়ে কে দুই পাসে দুইজনে ধরে আনছে,,,। তারপর আমাদের শরবত খাওয়ানো হলো। কিছু কথাবার্তাও হলো,,। তারপর মেয়ে আর আমাকে পাসের একটা রুমে পাঠিয়ে দিলো আমার হবু শশুর মশাই,,,,,
তারপর আমরা সেই রুমে গেলাম,,। কিন্ত বুঝতে পারিনি,,রুমে ঢোকার পর আমার কপালে কি অপেক্ষা করছে,,,,
— ওই মিয়া ওই,,,,।( মেয়েটা আমার কলার ধরে বলছে)
— আরে আরে করছেন কি,,,,?? আপনাকে চেনাচেনা লাগছে কই জেনো দেখেছি মনে হচ্ছে,,,।
— ওই আপনি নাকি আমাকে ভালবাসেন,,,??
— আরে আজব,,, আপনাকে ত আমি ঠিক মত চিনিই না,, ভালবাসবো কেমনে,,,?
— তাহলে আপনার বাবা কে আমাদের বাড়িতে বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে কেনো পাঠিয়েছিলেন শুনি,,,,??
— কিইইইইইইইই,,, আমি বাবাকে দিয়ে বিয়ের প্রস্তাব পাঠিয়েছি,,,,???
— হু,,,
— কবে,,,,??
— গত পরশু,,,,
— আমি কেনো আপনাকে বিয়ের প্রস্তাব পাঠাতে যাবো আজব তো!!
— আচ্ছা বাদ দেন,,,, যা হবার হয়েছে,,,,। আপনাকে আমার ভাল লাগছে,, তাই আমি আপনাকেই বিয়ে করবো। আপনার কি আমাকে ভাল লাগছে,,,,??
— মোটেই না,,,, আপনার মত ডাকাত মেয়ের সাথে সারাজীবন কাটাতে পারবো না আমি,,,,
— ওকে নো প্রব্লেম,, চলেন বাহিরে যাই,,,,। আর শুনেন বাহিরে গিয়ে এমন ভাব করবেন জেনো আপনার আমাকে খুব ভাল লাগছে ওকে,,,,
— কিন্ত এটা সত্তি নয়,,,,
— ওই দেবো না একটা চাটিয়ে মাথার উপর,,, ওই শোন তুই যদি বাহিরে গিয়ে এই বিয়ে ভাঙার কোনো চেষ্ট করিস,, তাহলে ওখানেই তোকে পুতে ফেলবো,, মনে রাখিস চল,,,,




ওরে আল্লাহ রে এ কোন মেয়ের পাল্লায় এসে পরলাম।
তারপর আর কি করার,,,বাহিরে গিয়ে এমন ভাব নিলাম যে সবাই ভাবলো আমি মেয়েকে পছন্দ করেছি। তাই বিয়ের বাকি কথা সেরে দিন তারিখ ঠিক করা হলো,,,।
তারপর আমরা বাসায় চলে এলাম,,,,
বাসায় এসেই বাবাকে ধরলাম,,,,



— বাবা,,,,,,।
— হুম রে বল,,,
— বাবা আমি এটা কি শুনলাম আজকে,,,?
— কি শুনেছিস,,?
— তুমি নাকি ওই মেয়েদের বাসায় বিয়ের প্রস্তাব নিয়ে গেছো,,,। তার উপর আবার এটাও বলছো যে আমি ওই মেয়েকে ভালবাসি,,,,।
— হুম যা সত্যি তাই তো,,,।
— মানে,,,,, কি সত্যি কিসের সত্যি,,
— তুই ওই মেয়েকে ভালবাসিস না,,,,,?
— আরে ওই মেয়েকে আমি তো চিনিই না ভালবাসা তো দূর,,,
— তাহলে সেদিন যে দেখলাম,,,,
— কি,,, কি দেখছো সেদিন,,,,?
— সেদিন যে দেখলাম তুই আর ওই মেয়েটা একসাথে বসে হাসাহাসি করছিস,,,,
— কিইইইই,,, কবে দেখছো,, আর কোন জায়গায়,,,,?
— ওইজে ওই রেষ্টুরেন্টটাতে,,,,,
— ও মাই গোড,,,, বাবা তুমিও পারো বটে,,,,। আরে সেদিন ওই রেষ্টুরেন্টের কোন সিট খালি পাচ্ছিলাম না,,,হঠাত দেখি মেয়েটার সামনে একটা সিট খালি আছে,,,। তাই ওইখানেই বসেছি,,,।
— তাহুলে তো ঠিকই আছে,,, মেয়েটার সিট খালিই ছিলো তুই গিয়ে সিটটা বুকিং করে দিলি,,,।
— ধুর বাবা মজা করো না তো,,,,
— আচ্ছা তাহলে যে হাসাহাসি করছিলি,,,,?
— ওই মেয়েটা কানে হেটফোন লাগিয়ে কার সঙ্গে জেনো কথা বলছিলো আর হাসছিলো,,ওর কথা শুনে আমারো হাসি পাইছিলো,,,,,
— ওওওহ এই ব্যাপার,,,,
— হু,,,,
— আচ্ছা যা হওয়ার হয়েছে,,,,। মেয়েটাও অনেক সুন্দর বিয়েটা করেই ফেল,,,,
— এখন কি না করার উপায় আছে,,,,,,




হাহাহাহাহা,,,
কি থেকে কি হয়ে গেলো বুঝতেই পারলাম না। তবে মেয়েটা খুব সুন্দর তাই আর না করিনি।
কয়েকদিন পর আমাদের বিয়ে হয়ে গেলো,,,,
তারপর বিয়ের প্রথম রাতে,,,,,



— হুম হুম,,( আমি)
— কিছু বলবা,,,,( বউ)
— না মানে আপনার নাম টা,,,,,,,,,
— ওই ওই আমাকে আপনি বলবা না,,,
— ওকে ওকে,,,
— তুমি আমার নাম জানো না,,,,,??
— উহু,,,,
— কি মানুষ তুমি হুম,,,,? নিজের বউয়ের নাম জানো না,,,,?
— আমি তো আমার নামই মনে রাখি না,,, মাঝে মাঝে আমি নিজেই কনফিউজড হয়ে যাই আমার নাম নিয়ে,,,,।
— হাহাহাহাহা,,,,আচ্ছা যাই হোক,,, আমার নাম ফারিয়া,,,,
— সুন্দর নাম,,,, আর আমার নাম,,,,,
–তন্ময়,,,, তাই তো,,,,??
— বাহ তুমি তো দেখছি সবই জানো,,,,
— যাকে ভালবাসি তাকেই যদি ভাল করে না চিনি তাহলে কি হয়,,,,,??
–,,,,,,,,,,,,,,,,,
— ওই কি হলো,,,, কি দেখছ,,,,,
— আমাকে তুমি ভালো বাসো,,,,,???
— হুম অনেক,,,,,এই কয়েকদিনে অনেএএএক ভালে বেসে ফেলেছি আমার বর কে,,,,,।
— কিন্ত ক্যানো এতো ভালবাসলে আমায়,,,,??
— কেনো ভালবেসেছি বলতে পারবো না,,, যদি বলো কতটুকু ভালবেসেছি বলে বোঝাতে পারবো,,,,,।
— কতটুকু ভালো বাসো আমায়,,,,????
— জতটুকু ভালো বাসলে তোমাকে ছাড়া থাকলে নিশ্বাস বন্ধ হয়ে আসে ততটুকু,,, জতটুকু ভালো বাসলে তোমার সাথে একদিন কথা না বললে চোখের কোনে পানি এসে যাবে ততটুকু,,, জতটুকু ভালবাসলে তুমি না খেয়ে থাকা ত দুর,, অল্প খেয়েছো শুনেই গলা দিয়ে খাবার নামবে না ততটুকু,,,,,


আমি আর কিছুই বলতে পারলাম না,,,। খুব জোরে জরিয়ে ধরলাম ফারিয়া কে,,।
— খুব ভালবাসো আমায়,,,,( আমি)
— হু,,ৎ,,
— ছেরে যাবে না ত,,,
— কোনো দিন না,,,,
— আই লাভ ইউ বউ আমার,,,,
— আই লাভ ইউ টু মাই বর,,,,


এমন একটা বউ পাওয়ার খুব শখ,,,জানি না সখটা পুরন হবে কি না,,, সবাই দোয়া করবেন জেনো পুরন হয়,,,,,,,
,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,,

Post Reads: 8262 Views