লজ্জা নয় জানতে হবে-বিয়ের আগের বদ অভ্যাসে

ইসলাম ও জীবন
Imran Khan || 09 February, 2020 ! 8: 57 am

💘 সবাইকে পড়ার অনুরোধ রইলো। 💘
লজ্জা নয় জানতে হবে।
ইসলাম কি বলে চলুন শুনি।
তরুণ প্রজন্মের জন্য অত্যধিক গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়।

বিয়ের আগে না জানার কারণে,ছেলে/মেয়ে এক বদ
অভ্যাসে জড়িয়ে পড়ে। আমাদের স্কুল/ কলেজগুলোতে
সব বিষয়ে বলা হলেও এই বিষয়ে বলা হয় না বললেই চলে।
তাই এই বিষয়ে না জানার কারণে অধিকাংশ ছেলে /
মেয়ে নিজের জীবনকে ধ্বংসের মুখে ঠেলে দিচ্ছে
calculation করে দেখা গেছে বর্তমানে অবিবাহিত
ছেলেদের মধ্য হতে ৮৫% আর মেয়েদের মধ্য হতে ৬৫%
এই বদ অভ্যাসে জড়িত।
যেটাকে আরবীতে বলা হয় নিকাহ বিল ইয়াদী
অর্থাৎ( হাতের সাথে বিবাহ করা) ইংরেজীতে বলা
হয় Masturbation আর শুদ্ধ বাংলায় বলা হয় হস্তমৈথুন।
যেটাকে নবীজি (সাঃ) হারাম বলেছেন। আর এই
কাজের শাস্তি অত্যন্ত ভয়ানক এটা করার কারণে,
কিয়ামতের দিন আঙ্গুলের পেটগুলো থেকে বাচ্চা
অর্ধেক বের হয়ে থাকবে। বাকিটা ফেরেশতারা টেনে
বের করবেন।
অন্য আরেক জাগায় বলা হয়, এটা করার কারণে যে
sparm বাহির হয়, কোন কোন ডাক্তার বলে থাকেন,
একবারের sparm এ ২০লক্ষ শুক্রাণু থাকে। সেই
শুক্রাণুগুলো থেকে একটি ডিম্বাণুতে গিয়ে বাচ্চার
জন্ম হয়। তো এই অপচয়ের কারণে আল্লাহ তায়ালা
কিয়ামতের দিন বলবেন যে, এই শুক্রাণুগুলোর জীবন
দাও!
যখন দিতে পারবে না। তখন তাকে কঠিন শাস্তি
দেওয়া হবে।
এটা তো গেল মৃত্যুর পরের কথা। কিন্তু যদি কেউ এটা
ছাড়তে না পারে, তাহলে তাকে দুনিয়াতে অনেক
পস্তাতে হবে।
এটা করার কারণে ছেলেরা যেই সমস্যার সম্মুখীন
হবে, সেটা হল
বিয়ে করতে পারবে না।
বিয়ে করলেও স্ত্রীর হক আদায় করতে পারবে না।
sparm এ যে শুক্রাণু রয়েছে তা শেষ হয়ে যাবে। যার
ফলে সন্তানের বাবা হতে পারবে না।
panis অস্বাভাবিক মোটা/চিকন হয়ে যাবে।
panis আর দাঁড়াবে না।
sparm একেবারে পাতলা হয়ে যাবে। যার ফলে
প্রস্রাব করতে গেলে আগে/পরে sparm বের হবে।
panis লুজ হয়ে যাবে, যার ফলে দৌড় দিলেও প্রস্রাব
বেরিয়ে আসবে।
আর অতিরিক্ত করার কারণে, সর্বশেষ যেটা হবে,
প্রস্রাব করতে গেলে আর প্রস্রাব আসবে না বরং রক্ত
বের হবে।
মেয়েরা যেই সমস্যার সম্মুখীন হবে
বিয়ের পর স্বামী সন্দেহ করবে যে, বিয়ের আগে
কোন পুরুষের সাথে রাত কাটিয়েছে। কেননা এর
দ্বারা virgin নষ্ট হয়ে যায়।
period অস্বাভাবিক হয়ে যাবে।
বন্ধ্যা হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
glans পথ লুজ হয়ে যাবে। যার ফলে স্বামীকে তৃপ্ত
করতে পারবে না।
আর ছেলে/মেয়ে উভয়ের যেই সমস্যাগুলা হবে
হাটু,হাত,পায়ের গিড়ায় গিড়ায় ব্যথা করবে।
মাথা, কোমড়ে ব্যথা করবে।
অল্প বয়সে যৌবন শেষ হয়ে যাবে।
হাটুতে ভর করে দাঁড়াতে কষ্ট হবে।
চেহারার সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যাবে।
রক্ত উৎপাদনের যেই মেশিন রয়েছে তা দূর্বল হয়ে
যাবে। ফলে রক্ত উৎপাদন কমে যাবে।
কিডনি দূর্বল হয়ে যাবে, ফলে প্রস্রাবে সমস্যা হবে
মোট কথা শরীরের প্রত্যেকটা অঙ্গ দূর্বল হয়ে
যাবে।
Absence of sex power (যৌন দূর্বলতা)এই রোগে ভুগতে
হবে।
এই গুনাহ থেকে বাঁচার উপায়ঃ-
কোন পর্ণগ্রাফি/ব্লুফিল্ম না দেখা।
সবসময় নিজেকে কোন না কাজে ব্যস্ত রাখা।
একা এক রুমে না থাকা।
কোন খারাপ চিন্তা মনে আসতে না দেওয়া।
সবসময় অজু অবস্থায় থাকা।
খারাপ কোন চিন্তা আসলে সাথে সাথে
ইস্তেগফার পড়া।
টয়লেটে বেশীক্ষণ না থাকা।
যখন বেশী উত্তেজনা সৃষ্টি হয়, দু’রাকাত নামাজ
পড়ে আল্লাহর কাছে দোয়া করা।
আর যারা অসুস্থ হয়ে পড়বে তাদের জন্য উচিত
ডাক্তারের শরণাপন্ন হওয়া।
বিঃদ্রঃ-আমার ভাই/বোনেরা এর ক্ষতি থেকে বেঁচে যায় এটার জন্য সবার কাছে বিশেষভাবে দোয়া চাই।
আমিও সবার জন্য দোয়া করি আল্লাহ যেন সবাইকে
এই গুনাহ থেকে হেফাজত করেন। আমিন

– আমি সবাইকে অনুরোধ করবো  আমাদের পেজে লাইক দেওয়ার জন্য যাতে নতুন কিছু শিখতে পারেন এবং
সবাই এটা শেয়ার করে অন্যদের পড়ার সুযোগ করে দেন। ধন্যবাদ

Collected

Comments

Post Reads: 400 Views